সোনারগাঁওয়ে এক চেয়ারম্যানের বদনাম করতে গিয়ে ফেঁসে গেছেন সোহাগ রনি।

Uncategorized অর্থনীতি প্রচ্ছদ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবুকে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে নাটক সাজিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে উল্টো নিজেই ফেঁসে গেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও আসন্ন মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ রনি।

চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু’র জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে সোহাগ রনি উক্ত ইউনিয়নের ৪,৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার জিয়াসমিনের ফাঁকা বাসায় গিয়ে তাকে প্ররোচনা ও ভয়-ভীতি দেখিয়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যে কথা বলতে বাধ্য করেন এবং তা গোপনে ভিডিও ধারন করেন। পরে ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ ফেসবুক ও বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টাল এবং স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশ করেন।

এঘটনা প্রতিবাদে সংরক্ষিত নারী ইউপি সদস্য জিয়াসমিন শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেন।

নারী ইউপি সদস্য জিয়াসমিন গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন নির্বাচনের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ রনি তার বাসায় গিয়ে তাকে বিভিন্ন প্ররোচনা ও ভয় দেখিয়ে তার শিখিয়ে দেওয়া কথা আমাকে দিয়ে বলতে বাধ্য করে। তিনি বলেন,আমার বড় ছেলে ইমনের একটি গোপন রেকর্ড সোহাগ রনির কাছে রয়েছে,যদি আমি তার শিখিয়ে দেওয়া কথা না বলি তাহলে সেই রেকর্ড জনসম্মুখে প্রকাশ করে দিবে এবং আমার ছেলেকে হেফাজতের মামলায় ঢুকিয়ে দিবে বলে ভয় দেখায়। সোহাগ রনির ভয়ে আমি তার শিখিয়ে দেওয়া কথা বলতে বাধ্য
হই। তবে আমি ঘুণাক্ষরেও জানতাম না সে গোপনে ওই কথা ভিডিওতে ধারণ করছে।

এসময় তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, মোগরাপাড়া ইউনিয়নের দুই বারের নির্বাচিত সফল চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু ভাই আমাদের কাছ থেকে কোনো টাকা পয়সা নেন না। উপজেলা থেকে কাজ আসলে তিনি নিজে সকল মেম্বারদের উপস্থিতিতে সেই কাজ মেম্বারদের মাঝে বন্টন করে দেন। ইউপি সদস্য জিয়াসমিন মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সকল সদস্য, সাংবাদিক ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সামনে তার ঘৃণিত কাজের জন্য ক্ষমা চান এবং চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবুকে তার পিতৃসমতুল্য দাবি করে তার পায়ে দরে ক্ষমা চান।
সাংবাদিক সম্মেলনে নারী ইউপি সদস্য জিয়াসমিনের সাথে তার স্বামী মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার জহির উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *