সোনারগাঁওয়ে মাসব্যাপী লোকজ উৎসব উপলক্ষে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।mn

Uncategorized অর্থনীতি আন্তর্জাতিক ইতিহাস প্রচ্ছদ শিক্ষা সোনার বাংলা

বাংলার প্রাচীন রাজধানী ঐতিহাসিক সোনারগাঁয়ে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের লাইব্রেরি ভবনের সভাকক্ষে মাসব্যাপী লোক কারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব ২০২১ আয়োজনে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সভায় সভাপতিত্ব করেন ফাউন্ডেশনের পরিচালক ড. আহমেদ উল্লাহ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের মাননীয় সংসদ-সদস্য জনাব মোঃ লিয়াকত হোসেন খোকা। বিশেষ অতিথি ছিলেন, সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার আতিকুল ইসলাম, উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি গোলাম মুস্তাফা মুন্না, সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক এডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া।
বুধবার(২৪ ফেব্রুয়ারি) বিকালে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের লাইব্রেরি ভবনের সভাকক্ষে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
নতুন প্রজন্মের কাছে লোকজ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের পরিচিতি ও মেলবন্ধনের প্রয়াসে প্রতিবছর ১৪ জানুয়ারিতে শুরু হলেও মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে এবছর তা পিছিয়ে ১ মার্চ ২০২১ খ্রিস্টাব্দ থেকে শুরু হবে। মতবিনিময় সভায় দেশীয় সংস্কৃতির পুনরুজ্জীবনে মাসব্যাপী লোক কারুশিল্পমেলা ও লোকজ উৎসব চলাকালীন আইন-শৃংঙ্খলা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং লোকজ উৎসবের অনুষ্ঠানমালা বর্ণাঢ্যভাবে আয়োজনের সার্বিক দিক নিয়ে মতবিনিয়ম সভায় আলোচনা হয়।
মতবিনিময় সভায় এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মোঃ রবিউল ইসলাম, ডিসপ্লে অফিসার একেএম আজাদ সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম, সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ্, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম ইকবাল, সোনারগাঁও জার্নালিষ্ট ক্লাবের সভাপতি শেখ এনামূল হক বিদ্যুৎ, সাধারণ সম্পাদক শওকত ওসমান সরকার রিপন, যুগ্ম সম্পাদক রাকিবুল হাসান সহ স্থানীয় বিভিন্ন গণমাধ্যম কর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন। লোক কারুশিল্পমেলা ও লোকজ উৎসব ২০২১ এর অনুষ্ঠানমালায় থাকবে বাউলগান, পালাগান, কবিগান, ভাওয়াইয়া-ভাটিয়ালীগান, জারি-সারিগান, হাছন রজারগান, লালন সঙ্গীত, মুর্শিদীগান, আলকাপ গান, গায়ে হলুদেরগান, ক্ষুদ্র-নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, শরিয়তী-মারফতীগান, লোককবিতা পাঠের আসর, পুঁথিপাঠ, গ্রামীণ খেলা, লাঠিখেলা, ঘুড়ি ওড়ানো, ভালোবাসার তামা-কাঁসা-পিতল শিল্পের প্রদর্শনী, লোকজজীবন প্রদর্শনী, পুতুল নাচ, বায়স্কোপ, চর্যাগীতি, সেমিনার আয়োজন, লোকগল্প বলা, পিঠা প্রদর্শনী ইত্যাদি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *