সোনারগাঁওয়ে  সাংবাদিককে হত্যার পরিকল্পনা

Uncategorized অর্থনীতি আন্তর্জাতিক ইতিহাস প্রচ্ছদ রাজনীতি শিক্ষা সোনার বাংলা

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে সন্ত্রাসী দিয়ে সাংবাদিককে হত্যা করে লাশ গুম করার জন্য এক ব্যক্তিকে পঞ্চাশ হাজার টাকা দিয়েছে রুমা আক্তার নামে এক নারী।

এ ঘটনায় সাংবাদিক সবুজ সরকার সামির গতকাল শনিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জন নিরাপত্তা বিভাগ, মহাপুলিশ পরিদর্শক (আইজিপি) এবং আজ রোববার নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগকারী সবুজ সরকার সামির সোনারগাঁও পৌরসভা এলাকার বাসিন্দা। দৈনিক রূপালী বাংলাদেশ ও দৈনিক ভোরের সময় পত্রিকার সোনারগাঁও উপজেলা প্রতিনিধি এবং
জাগো সোনারগাঁও ডটকম নামে একটি নিউজ পোর্টালের বার্তা ও প্রকাশনা সম্পাদক। এছাড়া সোনারগাঁ জার্নালিস্ট ক্লাবের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

জানা যায়, বিবাদী রুমা আক্তার সোনারগাঁও উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের আনন্দবাজার এলাকার রতন সরকারের স্ত্রী ও পিরোজপুর ইউনিয়নের মেঘনা শিল্প নগরীর কাদিরগঞ্জ এলাকার সোহেল রানার মেয়ে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বিবাদী রুমা আক্তার ব্যবসায়ী মুনাফা দেওয়ার কথা বলে বিভিন্ন মেয়াদে কয়েকমাসের জন্য সাংবাদিক সামির সরকারের শাশুড়ি রুবী আক্তারের কাছ থেকে ৩০ লাখ টাকা নেয়। বিনিময়ে বিবাদী রুমা আক্তার সামির সরকারের শাশুড়িকে সমপরিমাণ টাকার একটি চেক প্রদান করেন।

টাকা দেওয়ার নির্ধারিত মেয়াদ শেষ হলে রুবী আক্তার চেক নিয়ে ব্যাংকে গিয়ে জানাতে পারে রুমা আক্তারের একাউন্টে কোনো টাকা নেই। পরে নিয়ম অনুযায়ী চেক ডিজঅনার শেষে রুবী আক্তার বিবাদী রুমা আক্তারের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ জেলা কোর্টে চেক জালিয়াতির একটি দায়ের করেন। মামলাটি বর্তমানে বিচারাধীন অবস্থায় আছে।

সাংবাদিক সামির সরকার পাওনা টাকা আদায়ে শাশুড়ি রুবী আক্তারকে বিভিন্ন সময় পরামর্শ দিতেন এবং মামলা সূত্র ধরে থানা ও কোর্টে যাওয়া আসা করতেন। এতে বিবাদী রুমা আক্তার ক্ষুব্ধ হয়ে সন্ত্রাসী দিয়ে সাংবাদিক সামির সরকারকে হত্যা করে লাশ গুম করার জন্য সোনারগাঁও উপজেলার
সাদিপুর ইউনিয়নের পঞ্চমীঘাট সরকার বাড়ির শামীম (৩২) নামে এক ব্যক্তিকে ৫০ হাজার টাকা দিয়ে দায়িত্ব দেয়।

সাংবাদিক সামির সরকার পূর্ব পরিচিত হওয়ার কারণে শামীম তাকে হত্যা করার পরিকল্পনার বিষয়টি খুলে বলেন। পরবর্তীতে সাংবাদিক সবুজ সরকার সামির বিষয়টি সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রফিকুল ইসলামকে অবগত করলে তিনি সত্যতা নিশ্চিত করার জন্য একজন পুলিশ কর্মকর্তাকে তদন্তভার দেয়।

শামীম সরকার বিবাদী রুমা আক্তার ও সামির সরকারের উপস্থিতিতে পুলিশ কর্মকর্তার কাছে সাংবাদিক সামির সরকারকে রুমা আক্তারের ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার কথা স্বীকার সহ হত্যার পরিকল্পনার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। এছাড়া শামীম সরকার হত্যা পরিকল্পনার কথা স্বীকার করে একটি ভিডিও সাক্ষাৎকার দেন সাংবাদিক সামির সরকারের কাছে।

সাংবাদিক সবুজ সরকার সামির হত্যা পরিকল্পনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন সোনারগাঁও উপজেলার সাংবাদিক মহল। তারা তদন্তসাপেক্ষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য আহ্বান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *