সোনারগাঁওয়ে জমি বিরোধে-কারখানায় হামলা লুটপাট আহত – দুই নারী

Uncategorized অর্থনীতি আন্তর্জাতিক প্রচ্ছদ শিক্ষা সোনার বাংলা

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁওয়ে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষ একটি ব্যাবসায়ী পরিবারের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান তার তৈরির কারখানায় লুুুটপাট করে, কর্মচারীর উপরে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে কারখানাটি বন্ধ করে দেয়।এতে বাঁধা দেয়ায় বিলকিস বেগম (৪০) নামে এক গৃহবধূ ও সেতু ( ১৬) নামের এক কিশোরীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও শ্লীলতাহানি করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রতিবেশীরা আহতদের উদ্ধার সোনারগাঁও স্বাস্থ্য কেন্দ্র ভর্তি করেন।

এ ঘটনা ঘটেছে গত (৭ ডিসেম্বর) সোমবার উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়ি মজলিশ এলাকায়। এ ঘটনায় একই উপজেলার জালাল উদ্দিনের ছেলে, ভুক্তভোগীর স্বামী বাহাউদ্দীন (৫২) গতকাল বাদি হয়ে সোনারগাঁও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

পুলিশ ও লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, একই এলাকার জালাল উদ্দীনের ছেলে, মোঃ তাহাজ উদ্দিন (৫৫) মোঃ মাসুম কামাল / লালু (৪৮) হালিমা বেগম (৫০)। স্বামী তাহাজ উদ্দিন। মোসঃ রেখা (৪০)। মাকসুদ ( ২৬) গংদের সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধের যের ধরে হামলা চালিয়ে লুটপাট করে তার কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে। ঘটনার দিন ভুক্তভোগীর স্বামী ব্যাবসায়ী কাজে বাহিরে থাকায় তারের কারখানার কর্মচারী উপর একদল সন্ত্রাসী বাহিনী হামলা চালিয়ে লুটপাট করে কারখানাটি বন্ধ করে দেয়। এ সময় বাহাউদ্দীনের স্ত্রী ও কিশোরী মেয়ে বাঁধা দিলে লাঠিসোঠা,লোহার রড ও দেশীয় অস্রশস্র নিয়ে হামলা করে শরিরে বিভিন্ন স্থানে নীলা, ফুলা, যখম করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ভুক্তভোগীর স্বামী বাহাউদ্দীন জানান, উপরোক্ত তারের কারখানাটি বিভিন্ন সময় দখলের পায়তারা করে আসছে, বিবাদীরা বিভিন্ন সময় বাদীকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে আসছে। এর ধারাবাহিকতায় সোমবার বিকেলে বাড়িতে না থাকায় তাহাজ উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী কর্মচারীদের উপরে চালিয়ে লুটপাট করে কারখানা বন্ধ করে দেয়। হামলাকারীদের বাঁধা দিলে স্ত্রীও কিশোরী মেয়ের উপর হামলা চালায়। বিবাদিদের ভয়ে বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন, বর্তমানে বাদী নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিদর্শক রুবেল হাওলাদার (অপারেশন) বলেন, এই সংক্রান্ত একটি অভিযোগ পেয়েছি, ঘটনার স্থান পরিদর্শন করে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষ আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *